৫৯ মিনিটে পাওয়া যাবে ১ কোটি পর্যন্ত ঋণ, ব্যবসায়ীদের দীপাবলির উপহার কেন্দ্রের

এবার থেকে মাত্র ৫৯ মিনিটের মধ্যে ১ কোটি টাকা পর্যন্ত ঋণ পেতে পারেন ছোট ব্যবসায়ীরা, শুক্রবার দিল্লির বিজ্ঞানভবনে ‘মাইক্রো, স্মল অ্যান্ড মিডিয়াম এন্টারপ্রাইজেস সাপোর্ট অ্যান্ড আউটরিচ প্রোগ্রামের’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

৫৯ মিনিটে পাওয়া যাবে ১ কোটি পর্যন্ত ঋণ, ব্যবসায়ীদের দীপাবলির উপহার কেন্দ্রের

ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্পের প্রসার ও উন্নতির লক্ষ্যে এদিন ৫৯ মিনিটে ১ কোটি ঋণ প্রকল্প সহ মোট ১২টি পদক্ষেপ গ্রহণের কথা ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী। মোদি বলেন,

“কৃষি যদি এদেশের অর্থনীতির মেরুদণ্ড হয়, ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্প সেই অর্থনীতির উন্নয়নের পক্ষে বিশাল সহায়ক এক পদক্ষেপ”। তিনি বলেন, “এদিনের এই ঘোষণা ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্পের সঙ্গে যুক্ত হাজার হাজার কর্মীর দীপাবলিকে আরও একটু উজ্জ্বল করে তুলবে”। তিনি জানান, “ঋণ পাওয়া যাবে জিএসটি পোর্টালের মাধ্যমেই, জিএসটি রিটার্ন দাখিল করলেই জিগেস করা হবে আপনি ঋণ চান কি না”।

এদিন ঘোষিত হওয়া ১২ টি পদক্ষেপগুলি হলঃ

১. ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের ঋণ প্রদানের জন্য ওয়েবপোর্টাল উদ্বোধন। এই পোর্টালের মাধ্যমে সরাসরি ঋণের আবেদন করতে পারবেন উদ্যোগপতিরা, এবং একঘন্টারও কম সময়ে তা মঞ্জুর হয়ে যাবে। ঋণের টাকা আবেদনকারীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে পৌঁছতে সময় লাগবে ৭-৮ দিন।

২. জিএসটি-নথিভুক্ত ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের জন্য ১ কোটি টাকা পর্যন্ত ইনক্রিমেন্টাল ঋণের ক্ষেত্রে সুদে ২ শতাংশ ছাড় ।

৩.  বছরে ৫০০ কোটির বেশি লাভ করা সব কোম্পানিকে বাধ্যতামূলকভাবে ট্রেডস প্ল্যাটফর্ম (TReDS)-এ যুক্ত হতে হবে। এর মধ্যে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব সংস্থারাও পড়বে।

৪. রাষ্ট্রয়ত্ত্ব সংস্থাগুলির প্রয়োজনীয় জিনিসের ২০% এর পরিবর্তে এখন থেকে ২৫% ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্প থেকে নিতে হবে।

আরো পড়ুন: ব্যবসা করার পরিবেশে উল্লেখযোগ্য উন্নতি ভারতের, জানাল বিশ্ব ব্যাঙ্ক

৫.  সরকারি কোম্পানিগুলিকে তাদের মোট ক্রয়ের অন্তত ৩% মহিলা উদ্যোগপতিদের থেকে কিনতে হবে।

৬. রফতানির জন্য প্রি ও পোস্ট শিপমেন্ট ক্রেডিটে ইন্টারেস্ট সাবভেনশন ৩% থেকে বাড়িয়ে ৫% করা হল।

৭. প্রতিটি কোম্পানিকে সরকারি ই-মার্কেট প্লেস (GeM) এর সদস্যপদ নিতে হবে। পাশাপাশি কোম্পানিগুলি ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্প ক্ষেত্রের ভেন্ডরদের এই প্ল্যাটফর্মে নথিভুক্ত করতে বাধ্য থাকবে।

৮. ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্পের সঙ্গে সম্পর্কিত প্রযুক্তির উন্নয়নকল্পে ৬,০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ। এই অর্থের সাহায্যে দেশ জুড়ে তৈরি হবে ২০,০০০ টি হাব ও ১০০ টি টুল রুম।

৯.  ৮টি শ্রম আইন ও ১০টি কেন্দ্রীয় বিধির জন্য ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্পকে বছরে শুধুমাত্র একটিই বার্ষিক রিটার্ন জমা করতে হবে।

১০. ফার্মা কোম্পানির সঙ্গে ব্যবসা সহজ করার পরিবেশ তৈরি করা হবে।

১১. পরিবেশ সংক্রান্ত অনুমতি মঞ্জুরের পথ সুগম করা হবে।

১২. কোম্পানি অ্যাক্টে বড় সড় পরিবর্তন এনে ক্ষুদ্র ছোট ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের আইনি জটিলতা থেকে মুক্তি।

এছাড়াও ইন্সপেকশনের ক্ষেত্রে দুর্নীতি ও দাদাগিরি রুখতে এদিন মোদি ঘোষণা করেন, এখন থেকে কম্প্যুটারের মাধ্যমে ঠিক হবে কোন ইন্সপেক্টর কোন কারখানায় পর্যবেক্ষণে যাবেন, এবং ৪৮ ঘন্টরা মধ্যে তাকে রিপোর্ট আপলোড করতে হবে। দায়িত্ব দেওয়া না হলে একজন ইন্সপেক্টর কোনও কারখানায় যেতে পারবেন না, গেলে তাকে জবাবদিহি করতে হবে।

এদিনের এই ঘোষণাকে ঐতিহাসিক বলে আখ্যায়িত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আগামী দিনে দেশের অর্থনীতিকে আরও জোরদার করবে এই পদক্ষেপ।

৫৯ মিনিটে ১ কোটি ঋণ প্রকল্প সম্পর্কে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

১. এই অনলাইন পোর্টালের মাধ্যমে ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্পের ব্যবসায়ীরা স্মল ইন্ড্রাস্টিস ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া এবং পাঁচটি রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাঙ্কে (স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া, ব্যাঙ্ক অফ বরোদা, পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক, বিজয় ব্যাঙ্ক ও ইন্ডিয়ান ব্যাঙ্ক) আর্থিক সহয়তার জন্য ঋণের আবেদন করতে পারবে।

২. ব্যাঙ্কের সঙ্গে সংযোগ স্থাপনের জন্য ব্যাঙ্কের কোনও শাখায় যাওয়ার প্রয়োজন নেই। ঋণ মঞ্জুর হওয়া বা টাকা দেওয়ার আগে অবধি কোনও মানুষের হস্তক্ষেপ থাকবে না।

৩. এই পোর্টালের মাধ্যমে কোনও গ্যারান্টি ছাড়াই ২ কোটি টাকা পর্যন্ত ঋণ পাবেন ব্যবসায়ীরা।

এই ঋণের জন্য আবেদন করতে হলে যা যা প্রয়োজন

. জিএসটি আইডেনটিফিকেশন নম্বর (GSTIN), জিএসটি ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড।

২. আয়কর ই-ফাইলিংয়ের পাসওয়ার্ড ও অন্তত গত ৩ বছরের ডেট অফ ইনকর্পোরেশন/বার্থ বা ITR XML ফর্ম্যাটে ।

৩. কারেন্ট অ্যাকাউন্ট- নেট ব্যাঙ্কিংয়ের ইউজার নেম পাসওয়ার্ড বা গত ৬ মাসের ব্যাঙ্ক স্টেটমেন্ট PDF ফর্ম্যাটে।

৪. ডিরেক্টর/পার্টনার/প্রোপরাইটারের সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য- মৌলিক, ব্যক্তিগত, কেওয়াইসি, শিক্ষাগত যোগ্যতা ও সংস্থায় মালিকানা।

৫. ঋণ মঞ্জুরির পর ১০০০টাকা + জিএসটি।

ফিচার্ড ইমেজ ক্রেডিট: Pixabay

About The Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *