সুখবর! ছোট-মাঝারি শিল্পে ঋণ পাওয়ার রাস্তা আরও সহজ করলো কেন্দ্র

অনাদায়ী ঋণ সমস্যার সমাধানের লক্ষ্যে নিজেদের নিয়মে কিছু পরিবর্তন আনার কথা ঘোষণা করল ক্রেডিট গ্যারান্টি ফান্ড ট্রাস্ট ফর মাইক্রো অ্যান্ড স্মল এন্টারপ্রাইজেস্।  আগামী ১ ডিসেম্বর ও তত্পরবর্তী সময় অনুমোদিত ঋণে লাগু হবে এই নতুন নিয়ম।

গত ১৩ তারিখ, ক্রেডিট গ্যারান্টি ফান্ড ট্রাস্ট ফর মাইক্রো অ্যান্ড স্মল এন্টারপ্রাইজেসের তরফে একটি সার্কুলার জারি করে জানানো হয় ঋণ জামিন পদ্ধতি বা ক্রেডিট গ্যারান্টি প্রসেস-এর উন্নতি ঘটাতে তাদের নিয়মে খানিক পরিবর্তন আনতে চলেছে এই ট্রাস্ট।

নতুন নিয়মে ঋণ গ্রহীতার মূল কয়েকটি আর্থিক তথ্য জানতে চাওয়া হবে। ১০ লক্ষ টাকার উপরের স্ল্যাবের জন্য এই তথ্য জানানো বাধ্যতামূলক, এবং ১ লক্ষ থেকে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত তা এখনও ঐচ্ছিক। এই তথ্যগুলির মধ্যে রয়েছে সংস্থার ডেব্ট ইক্যুইটি রেশিও, কারেন্ট রেশিও, ডেব্ট সার্ভিস কভারেজ রেশিও ইত্যাদি।

ক্রেডিট গ্যারান্টি ফান্ড ট্রাস্ট ফর মাইক্রো অ্যান্ড স্মল এন্টারপ্রাইজেস্ (CGTMSE) কিভাবে সাহায্য করে?

মাঝারি, ছোট ও ক্ষুদ্র শিল্পের জন্য ঋণ পাওয়ার পথ সহজ করতে ও উদ্যোগপতিদের হয়রানি কমাতে কেন্দ্র সরকার ও এসআইডিবিআই-এর যৌথ উদ্যোগে গঠিত ক্রেডিট গ্যারান্টি ফান্ড ট্রাস্ট ফর মাইক্রো অ্যান্ড স্মল এন্টারপ্রাইজেস্।

ব্যাঙ্ক এবং অন্যান্য অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানের থেকে ঋণ পাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় বন্ধক বা গ্যারান্টার জোগাড় করা প্রায়শই অসম্ভব হয়ে পড়ে প্রথম প্রজন্মের উদ্যোগপতিদের পক্ষে। এই সমস্যার সুরাহা করতে এবং ছোট ও মাঝারি শিল্পে ঋণের সরবরাহ বাড়াতে ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিম চালু করে কেন্দ্র সরকার। আর এই প্রকল্প লাগু করতে গঠিত হয় ক্রেডিট গ্যারান্টি ফান্ড ট্রাস্ট ফর মাইক্রো অ্যান্ড স্মল এন্টারপ্রাইজেস্।

আরো পড়ুন: শিল্পের জন্য জমিতে ছাড় ঘোষণা রাজ্যের, বেশি কিনলে বাড়বে ছাড়ের অঙ্ক

হাইব্রিড সিকিউরিটি কি?

ছোট ও মাঝারি শিল্পপতিদের কোল্যাটারাল সিকিউরিটি অর্থাত্ বন্ধক ও তৃতীয় পক্ষ গ্যারান্টারের সমস্যার সমাধান করতে হাইব্রিড সিকিউরিটি পদ্ধতি চালু করে এই ক্রেডিট গ্যারান্টি ফান্ড ট্রাস্ট।

এটি একটি আংশিক কোল্যারাটার সিকিউরিটি মডেল অর্থাত্ ঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান সদস্যরা প্রদত্ত ঋণের একটা অংশের জন্য ঋণ গ্রহীতার কাছ থেকে কোল্যাটারাল সিকিউরিটি নিতে পারবে এবং বাকি অংশটির জন্য দায়বদ্ধ থাকবে ক্রেডিট গ্যারান্টি ফান্ড ট্রাস্ট ফর মাইক্রো অ্যান্ড স্মল এন্টারপ্রাইজেস্।

সর্বোচ্চ ২০০ লক্ষ টাকার ঋণের দায়িত্ব নেবে এই ট্রাস্ট। এর ফলে ঋণের আবেদন করার জন্য ঋণের মোট অঙ্কের একটা অংশের জন্যই কোল্যাটারাল সিকিউরিটি যোগাতে হয় ঋণ গ্রহীতাকে। উপযুক্ত ঋণ গ্রহীতার ঋণ অনুমোদন করে এই সুবিধা পেতে অনলাইনে আবেদন করতে পারে ঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলি।

প্রসঙ্গতঃ বর্তমানে সরকারি ও বেসরকারি ব্যাঙ্ক মিলিয়ে মোট ১০৬টি প্রতিষ্ঠান এর সদস্য যারা এই আবেদন করতে পারে।

ছোট ও মাঝারি শিল্পে অনাদায়ী ঋণ ও ঋণ জামিন পদ্ধতি নিয়ে টানাপোড়েন বহুদিনের। ক্রেডিট গ্যারান্টি ফান্ড ট্রাস্ট ফর মাইক্রো অ্যান্ড স্মল এন্টারপ্রাইজেসের এই পরিবর্তিত নিয়ম সেই সমস্যার সমাধান কতটা করতে পারে ভবিষ্যতই তার উত্তর দেবে।

আপনার কি মতামত? দয়া করে জানান নিচের কমেন্ট বক্সে I

About The Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *