ব্যবসা শুরু করতে চান? জেনে নিন পরিকল্পনার তিনটি ধাপ

আপনি ব্যবসা করতে চান কিন্তু কোনও বড় ব্যবসার পরিকল্পনা নেই?

চিন্তা করবেন না, আপনি একা নন।

সফল ব্যবসার পরিকল্পনার থেকে ব্যবসা করার আকাঙ্খা সবসময়ই বেশি থাকে। এটা আমি সম্পূর্ণ নিজের অভিজ্ঞতা থেকেই বলছি এবং পুরোটা আমাদের কাছে খুবই হতাশাজনক হয়ে ওঠে যখন দেখি অন্যরা একটার পর একটা ব্যবসার পরিকল্পনা নিয়ে আসে।

সত্যি কথা বলতে কি, কোনও কিছু বিক্রি করা ছাড়া ব্যবসা শুরু সম্ভব না। এবং, শুরুতে কখনও কখনও সেটা খুব কঠিন হতে পারে।

তাই সৃজনীশক্তির সাহায্যে কীভাবে একটি ব্যবসার পরিকল্পনা করা যায় তার কয়েকটি উপায় আমি এখানে তুলে ধরছি। এই প্রক্রিয়াগুলি আপনাকে আপনার ব্যবসা পরিকল্পনাতে সাহায্য করবে

১.  পড়ুন এবং সবকিছু পড়ুন

ব্যবসার পরিকল্পনা তৈরির দক্ষতা বাড়ানোর সর্বোত্তম উপায়টি হলো পড়া |

এলান মাস্ক প্রতিদিন দু’টি করে বই পড়তেন; বিল গেটস বলেছেন তিনি প্রতি বছর ৫০ টি বই পড়েন; এবং ওয়ারেন বাফেট তাঁর কাজের দিনের ৮০% ব্যয় করেন পড়াশোনার পিছনে। বাফেটের মতে সাফল্য অর্জনের প্রথম ধাপটিতে  অনেক পড়তে হয়।

বই

ইমেজ ক্রেডিট: Susan Yin on Unsplash

কিন্তু, কেন এই বিখ্যাত ব্যক্তিরা পড়াকে এতটা গুরুত্ব দিয়েছেন?

উত্তরটি সহজ, আপনি যত বেশি জানবেন, তত বেশি আপনি বুঝতে পারবেন। কিছু জানা এবং কিছু বোঝার মধ্যে একটি বড় পার্থক্য আছে।

প্রথমটি আপনাকে চিনতে সাহায্য করবে, এবং পরেরটির সাহায্যে আপনি বিশ্লেষণ করতে পারবেন। পঠন আপনাকে বিভিন্ন বিষয়ে গভীর জ্ঞানলাভে সাহায্য করে।

ব্যবসায়িক পরিকল্পনা তৈরি হয় দুই বা ততোধিক বিষয়ের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপনের মধ্যে দিয়ে। অ্যাপলের আইফোন, আইওয়াচ, টেসলা বা সম্পূর্ণ বৈদ্যুতিক গাড়ির কথা ভাবুন । প্রথমে তাঁরা একটি সংযোগ দেখেন এবং তারপর সেই পরিকল্পনাগুলোকে ব্যাবহারিক জীবনের সঙ্গে মেলান।পরিকল্পনাগুলো অবাস্তব হিসাবে শুরু হলেও আপনাকে সে বিষয়ে এতটাই জ্ঞান অর্জন করতে হবে যাতে সারা পৃথিবীকে সেটা নিয়ে ভাবাতে পারেন। এই বক্তব্যের বৈজ্ঞানিক ভিত্তিটি দেখে নেওয়া যাক।

গবেষকরা দেখিয়েছেন কেউ যখন কোনও উপন্যাস পড়ে মস্তিষ্কের মধ্যে উল্লেখযোগ্যভাবে কিছু সংযোজন ঘটে এবং পরবর্তী কয়েক দিনের জন্য তার একটি প্রভাব থাকে।

সহজভাবে বলা হয়, আপনি যত তাড়াতাড়ি মস্তিষ্কের সঙ্গে সংযোগ তৈরি করতে পারবেন, তত দ্রুত আপনি চিন্তা করবেন এবং পরিকল্পনা  তৈরি করতে পারবেন। সেই জন্য পড়ুন, যা পাবেন তাই পড়ুন।

২ . অকারণ চিন্তাভাবনা বন্ধ করুন

ভেবে দেখেছেন কখনও কখনও  কিছু জিনিস আপনার জিভের গোড়ায় থাকলেও কেন আপনি সেটা মনে করতে পারেন না ?

ব্লকিং নামক এক তত্ত্ব বলছে, আপনার মস্তিষ্কে নিউরন চেষ্টা করে আপনি যে তথ্যটি চাইছেন তা অনুসন্ধান করতে, কিন্তু কখনও কখনও ডানদিকের পরিবর্তে এটি বাম দিকে দিক বদল করে ফেলে। সুতরাং, নিউরন পরিকল্পিত গন্তব্যস্থলের পরিবর্তে পৌঁছয় লক্ষ্যহীন স্থানে। এই কারণে আপনি এত কাছাকাছি পৌঁছেছেন মনে করেন, কিন্তু ঠিক সেখানে পৌঁছন না।

সমস্যা হল আপনি যত দৃঢ় ভাবেই চেষ্টা করুন, সক্রিয়ভাবে আপনি নিউরনকে সঠিক দিকে নিয়ে যেতে পারবেন না। বরং আপনাকে এই সব সম্পর্কে চিন্তা করা থামাতে হবে। এর ফলে, আপনার মস্তিষ্ক একটু বিশ্রাম নিতে পারবে এবং যেহেতু বিষয়টি আপনার অবচেতনেই ঘোরাঘুরি করে, কিছুক্ষণ পরে তথ্যটি নিজে থেকেই ধরা দেবে।

একই জিনিস ঘটে যখন আমরা পরিকল্পনা বা কোনও সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করি। আমাদের মস্তিষ্ক একটি নির্দিষ্ট মোড়ে যাচ্ছে, কিন্তু তারপর হটাৎ আমরা অন্য দিকে গিয়ে পৌঁছই ,যেখান থেকে আর কোথাও যাওয়া যায় না।

এটি ঘটে যখন কোনও কিছু করতেই হবে ভেবে আপনি জোর করে সেটা করার চেষ্টা করেন। পরিবর্তে, খানিক বিরতি নিন এবং তারপর সমস্যা সমাধান বা পরিকল্পনায় ফিরুন। আগের সমস্যাটি আবার নতুন ভাবে ভাবতে আপনার মস্তিষ্কের মাত্র ২0 থেকে ৩0 মিনিট সময় লাগবে।

তারমানে এই নয় যে আপনি প্রথমবারেই সমাধান পেয়ে যাবেন। এই প্রক্রিয়াটিতে আপনার দিন, সপ্তাহ বা এমনকি বছরও লেগে যেতে পারে, তারপর আপনি পেতে পারেন আপনার কাঙ্খিত পরিকল্পনা।

আমি বলতে চাইছি মস্তিষ্ককে বেশি করে কাজে লাগানোর চেষ্টা করে আপনি নিজের কোনও উপকার করছেন না। এটা একটি জৈবিকপ্রক্রিয়া।

৩. প্রতিটি ব্যবসা পরিকল্পনার মূল্যায়ন করুন

পরিশেষে, খারাপ পরিকল্পনায় ভয় করবেন না।

প্রতি কোম্পানি এবং উদ্যোক্তা পরবর্তী সফল পরিকল্পনা খুঁজে চলেছেন, কিন্তু তাঁরা প্রায়ই এটা বুঝে উঠতে পারেন না যে সবচেয়ে ভাল পরিকল্পনা আসে অনেকগুলো ব্যর্থ পরিকল্পনার পর। আপনি যদি শুধু ভাল পরিকল্পনার উপর আপনার সর্ব শক্তি দিয়ে মনোনিবেশ করেন, তাহলে আপনি সর্বোত্তম পরিকল্পনা থেকে বঞ্চিত হবেন। |

সুতরাং, খারাপ পরিকল্পনায় ভয় পাবেন না। এমনকি কোনও পরিকল্পনা যদি এখন খারাপও মনে হয়, লিখে রাখুন ভবিষ্যতে তা কাজে লাগতে পারে।

অতএব, ব্যর্থ ব্যবসা পরিকল্পনার ভয়কে সরিয়ে রেখে, মনকে নিজ সৃজনশীলতা সঙ্গে খেলতে দিন।

আপনি একা বা অন্যদের সঙ্গে মিলে এই পরিকল্পনা করতে পারেন। ভুল হওয়া পরিকল্পনা তৈরির প্রক্রিয়ার একটি অংশ মাত্র। ঝুঁকি নিন, ভুল করুন, ভুল থেকে শিখুন।কিভাবে একটি সৃজনশীল ব্যবসার পরিকল্পনা করবেন? নীচের মন্তব্য বিভাগে বিনা দ্বিধায় আমাদের জানান, আমরা এই  নিবন্ধে আপনার সম্পূর্ণ কৃতিত্বসহ সেটা যোগ করব।

About The Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *